• রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:৩৬ পূর্বাহ্ন
Headline
সমাজ উন্নয়নে অংশীদারীত্ব হয়ে কাজ করে যাচ্ছেন সাবেক ছাত্রনেতা ফয়সাল এখনই উঠছে না লকডাউন। বাড়ছে বিধিনিষেধ। সিদ্ধান্ত আন্তঃমন্ত্রণালয়ের। শ্রীপুরে রাস্তা পার হতে গিয়ে কাভার্ড ভ্যান চাপায় স্বামী-স্ত্রী নিহত কঠোর লকডাউন কতোটা ফলপ্রসূ? সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ। করোনায় স্বাস্থ্যবিধি মানতে নড়াইলে মাশরাফির ব্যতিক্রমী পদক্ষেপ কি কি থাকছে সাত দিনের কঠোর লকডাউনে? লাগামহীন করোনার ভয়াবহতা! সোমবার থেকে কঠোর লকডাউন, মাঠে থাকবে সেনাবাহিনী। দেশের শীর্ষ পর্যটনকেন্দ্রের তালিকায় অপার সম্ভাবনার নাম সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলা নতুন সাতটি প্রতিষ্ঠানের সাথে চুক্তি স্বাক্ষর সম্পূর্ণ করলো শ্রেষ্ঠ ডট কম রাণীনগরে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে একই পরিবারের তিন জনকে অপহরণ নাটোক!




অর্থনৈতিক কূটনীতি জোরদারে মিশন-প্রধানের কাছে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর চিঠি

Reporter Name / ১১২ Time View
Update : বৃহস্পতিবার, ২ জানুয়ারী, ২০২০




স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উত্তরণের পরও বাংলাদেশের শুল্কমুক্ত রপ্তানির সুবিধা বজায় রাখতে জোর কূটনৈতিক তৎপরতা চালাতে বিদেশে অবস্থিত বাংলাদেশের মিশন-প্রধানদের নির্দেশনা দিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন।

সম্প্রতি বিদেশে অবস্থিত বাংলাদেশের মিশন প্রধানদের এক চিঠিতে এই নির্দেশনা দেন মন্ত্রী। বৃহস্পতিবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক বার্তায় এই তথ্য জানানো হয়।

চিঠিতে মিশন প্রধানদের উদ্দেশে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক বিদেশি বিনিয়োগবান্ধব যেসব নীতি গৃহীত হয়েছে এবং যেসব প্রণোদনা প্রদান করা হচ্ছে, তা স্বাগতিক দেশগুলোর সম্ভাব্য বিনিয়োগকারীদের কাছে তুলে ধরার মাধ্যমে বাংলাদেশে বিনিয়োগে আকৃষ্ট করার ক্ষেত্রে মিশনগুলো গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারবে।

বার্তায় জানানো হয়, এ বিষয়ে সবাইকে বিনিয়োগ-সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় তথ্য-উপাত্ত, বিভিন্ন প্যাকেজের বিবরণ ইত্যাদিতে সব সহায়তা বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ, বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় প্রদান করবে।

বিভিন্ন দেশের সরকার, নীতিনির্ধারণী মহল ও আমদানিকারকদের সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে বাংলাদেশের রপ্তানির প্রবৃদ্ধি অক্ষুণ্ন রাখতে মিশন প্রধানদের চিঠিতে নির্দেশনা দেন মোমেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের তৈরি পোশাক, ফার্মাসিউটিক্যালস এবং কৃষিপণ্য রপ্তানির সম্ভাবনাময় নতুন বাজার অনুসন্ধানে মিশনগুলোকে আরও সক্রিয় ভূমিকা রাখতে হবে।’

প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে রূপকল্প ২০২১ এবং রূপকল্প ২০৪১ আমরা নির্ধারিত সময়ের আগেই অর্জন করতে সার্বিক বিনিয়োগ এবং রপ্তানি বৃদ্ধিতে আরও মনোযোগী হওয়ার তাগিদ দেন মোমেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বাংলাদেশের রপ্তানি বৃদ্ধি এবং দেশে উৎপাদিত পণ্যের নতুন বাজার তৈরির পাশাপাশি বৈদেশিক বিনিয়োগ বৃদ্ধিও আমাদের উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা) গঠনের মাধ্যমে সরকার বিদেশি বিনিয়োগকারীদের জন্য বিভিন্ন ধরনের প্রণোদনা প্রদান করছে।’

বাংলাদেশে যে ১০০টি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল এবং ২৮টি হাই-টেক পার্ক নির্মাণ করা হচ্ছে, সেখানে বিদেশি বিনিয়োগ আকর্ষণে মিশনগুলোর গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা প্রত্যাশা করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

চিঠিতে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বাংলাদেশের তৈরি পোশাক সেক্টর নিয়ে ষড়যন্ত্র হচ্ছে জানিয়ে দূতাবাসগুলোর এই ইস্যুতে কাজ করার আহ্বান জানান। বলেন, ‘বিগত দশকে বাংলাদেশের বিস্ময়কর আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন এবং বিশ্বব্যাপী বাংলাদেশের তৈরি পোশাকের রপ্তানি অভাবনীয় বৃদ্ধির কারণে বিভিন্ন মহল ষড়যন্ত্র করে বাংলাদেশের তৈরি পোশাক শিল্প এবং সামগ্রিকভাবে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অপপ্রচার চালাচ্ছে। সরকার সব অংশীজনকে সঙ্গে নিয়ে এসব মিথ্যা প্রচারণাকে প্রতিরোধ করার জন্য নিরন্তর প্রয়াস চালিয়ে যাচ্ছে।’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘বিদেশে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসগুলোর এ বিষয়ে বিশেষ করণীয় রয়েছে। বাংলাদেশের বিরুদ্ধে এ ধরনের যেকোনো প্রচারণা সম্পর্কে দূতাবাসগুলোকে সজাগ থাকতে হবে এবং উদ্ভূত যেকোনো পরিস্থিতিতে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।’

একইসঙ্গে বাংলাদেশের তৈরি পোশাক শিল্পখাতের সামগ্রিক উন্নয়নে সরকার কর্তৃক গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপ তুলে ধরতে মিশনগুলো প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।





আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category




side bottom