শুক্রবার, ২২ জানুয়ারী ২০২১, ০৬:৩৩ পূর্বাহ্ন




কুষ্টিয়ায় পাঁচতলা বিশিষ্ট ভবনে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ২টি ফ্লোর এর প্রায় সবকিছু ভস্মীভূত

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ২ নভেম্বর, ২০১৯
  • ০ Time View

শনিবার (২ নভেম্বর) ভোর পৌনে ৬টার দিকে কুষ্টিয়া মেডিকেলের চিকিৎসক ডা: শহিদুল ইসলামের নিশান মোড়ে শহরতলীর হাউজিং ডি-ব্লকের ১১/১নং পাঁচতলা বিশিষ্ট ভবনে অগ্নিকান্ডের ঘটনায় দুইটি ফ্লোর (৩য় ও ৪র্থ তলা) এর প্রায় সবকিছু ভস্মীভূত হয়েছে।

সংবাদ পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা এক ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয় । এভবনের বৈদ্যুতিক চুলা থেকে উক্ত আগুনের সূত্রপাত বলে প্রাথমিক ভাবে ধারণা করছেন ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধারকারী দল।

কুষ্টিয়া মডেল থানার পুলিশ কর্মকর্তা আনোয়ারুল ইসলাম (প্রাথমিক তদন্তকারী) সরেজমিনে যেয়ে জানান, বৈদ্যুতিক চুলা থেকে আগুনের সূত্রপাত হওয়ায় দ্রূত আগুন ছড়িয়ে পড়েছিল । এক্ষেত্রে ভবনের বৈদ্যুতিক ত্রুটি মোকাবিলায় যে ধরনের ওয়ারিং থাকার প্রয়োজন ছিল তা না থাকায় এ দূর্ঘটনাটি ঘটেছে। এঘটনায় ৩য় ও ৪র্থ তলার সবকিছু পুড়ে ভস্মীভূত হয়েছে। কিন্তু সঠিক ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ এখনও নিরূপন করা সম্ভব হয়নি, তবে তদন্ত শেষে বলা যাবে কি পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

কুষ্টিয়া ফায়ার সার্ভিসের সহকারী পরিচালক রফিকুল ইসলাম জানান, কোটি টাকা ব্যায়ে নির্মিত উক্ত ভবনে তাৎক্ষণিক কোন অগ্নি নির্বাপন সামগ্রী ছিলো না এবং ভবনে ব্যবহৃত বৈদ্যুতিক ওয়ারিং দূর্বল ছিল । এ অগ্নিকান্ডের ঘটনায় দুইটি ফ্লোরের আসবাবপত্রসহ গৃহস্থালীর প্রায় সবকিছু ভস্মীভূত হয়েছে । সাম্প্রতিক সময়ে কুষ্টিয়াতে কয়েকশত বহুতল ভবন বা অবকাঠামো নির্মিত হয়েছে যা সার্বিক বিবেচনায় কোনটিই পরিকল্পিত ও নিরাপদ নয়। অগ্নিকান্ডসহ যে কোন ধরণের বিপর্যয় ঘটলে ব্যাপক হারে প্রানহানীর ঘটনা ঘটতে পারে । একদিকে প্রাথমিক মোকাবিলায় এসব ভবনের নিজস্ব কোন অগ্নি নির্বাপন সরঞ্জামাদি নেই। এছাড়াও ১০-১২তলা বিশিষ্ট ভবনে বড় ধরনের কোন অগ্নিকান্ড ঘটলে সেটা মোকাবিলায় ফায়ার সার্ভিসেরও প্রাসঙ্গিক সরঞ্জামাদির অপ্রতুলতা আছে।




More News Of This Category




side bottom




© All rights reserved © 2020 Atozithost
Design & Developed by: ATOZ IT HOST
Tuhin