• রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:৩১ অপরাহ্ন
Headline
সমাজ উন্নয়নে অংশীদারীত্ব হয়ে কাজ করে যাচ্ছেন সাবেক ছাত্রনেতা ফয়সাল এখনই উঠছে না লকডাউন। বাড়ছে বিধিনিষেধ। সিদ্ধান্ত আন্তঃমন্ত্রণালয়ের। শ্রীপুরে রাস্তা পার হতে গিয়ে কাভার্ড ভ্যান চাপায় স্বামী-স্ত্রী নিহত কঠোর লকডাউন কতোটা ফলপ্রসূ? সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ। করোনায় স্বাস্থ্যবিধি মানতে নড়াইলে মাশরাফির ব্যতিক্রমী পদক্ষেপ কি কি থাকছে সাত দিনের কঠোর লকডাউনে? লাগামহীন করোনার ভয়াবহতা! সোমবার থেকে কঠোর লকডাউন, মাঠে থাকবে সেনাবাহিনী। দেশের শীর্ষ পর্যটনকেন্দ্রের তালিকায় অপার সম্ভাবনার নাম সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলা নতুন সাতটি প্রতিষ্ঠানের সাথে চুক্তি স্বাক্ষর সম্পূর্ণ করলো শ্রেষ্ঠ ডট কম রাণীনগরে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে একই পরিবারের তিন জনকে অপহরণ নাটোক!




কুষ্টিয়ায় পাঁচতলা বিশিষ্ট ভবনে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ২টি ফ্লোর এর প্রায় সবকিছু ভস্মীভূত

Reporter Name / ১২৩ Time View
Update : শনিবার, ২ নভেম্বর, ২০১৯




শনিবার (২ নভেম্বর) ভোর পৌনে ৬টার দিকে কুষ্টিয়া মেডিকেলের চিকিৎসক ডা: শহিদুল ইসলামের নিশান মোড়ে শহরতলীর হাউজিং ডি-ব্লকের ১১/১নং পাঁচতলা বিশিষ্ট ভবনে অগ্নিকান্ডের ঘটনায় দুইটি ফ্লোর (৩য় ও ৪র্থ তলা) এর প্রায় সবকিছু ভস্মীভূত হয়েছে।

সংবাদ পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা এক ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয় । এভবনের বৈদ্যুতিক চুলা থেকে উক্ত আগুনের সূত্রপাত বলে প্রাথমিক ভাবে ধারণা করছেন ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধারকারী দল।

কুষ্টিয়া মডেল থানার পুলিশ কর্মকর্তা আনোয়ারুল ইসলাম (প্রাথমিক তদন্তকারী) সরেজমিনে যেয়ে জানান, বৈদ্যুতিক চুলা থেকে আগুনের সূত্রপাত হওয়ায় দ্রূত আগুন ছড়িয়ে পড়েছিল । এক্ষেত্রে ভবনের বৈদ্যুতিক ত্রুটি মোকাবিলায় যে ধরনের ওয়ারিং থাকার প্রয়োজন ছিল তা না থাকায় এ দূর্ঘটনাটি ঘটেছে। এঘটনায় ৩য় ও ৪র্থ তলার সবকিছু পুড়ে ভস্মীভূত হয়েছে। কিন্তু সঠিক ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ এখনও নিরূপন করা সম্ভব হয়নি, তবে তদন্ত শেষে বলা যাবে কি পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

কুষ্টিয়া ফায়ার সার্ভিসের সহকারী পরিচালক রফিকুল ইসলাম জানান, কোটি টাকা ব্যায়ে নির্মিত উক্ত ভবনে তাৎক্ষণিক কোন অগ্নি নির্বাপন সামগ্রী ছিলো না এবং ভবনে ব্যবহৃত বৈদ্যুতিক ওয়ারিং দূর্বল ছিল । এ অগ্নিকান্ডের ঘটনায় দুইটি ফ্লোরের আসবাবপত্রসহ গৃহস্থালীর প্রায় সবকিছু ভস্মীভূত হয়েছে । সাম্প্রতিক সময়ে কুষ্টিয়াতে কয়েকশত বহুতল ভবন বা অবকাঠামো নির্মিত হয়েছে যা সার্বিক বিবেচনায় কোনটিই পরিকল্পিত ও নিরাপদ নয়। অগ্নিকান্ডসহ যে কোন ধরণের বিপর্যয় ঘটলে ব্যাপক হারে প্রানহানীর ঘটনা ঘটতে পারে । একদিকে প্রাথমিক মোকাবিলায় এসব ভবনের নিজস্ব কোন অগ্নি নির্বাপন সরঞ্জামাদি নেই। এছাড়াও ১০-১২তলা বিশিষ্ট ভবনে বড় ধরনের কোন অগ্নিকান্ড ঘটলে সেটা মোকাবিলায় ফায়ার সার্ভিসেরও প্রাসঙ্গিক সরঞ্জামাদির অপ্রতুলতা আছে।





আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category




side bottom