• বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:২৪ অপরাহ্ন
Headline
সমাজ উন্নয়নে অংশীদারীত্ব হয়ে কাজ করে যাচ্ছেন সাবেক ছাত্রনেতা ফয়সাল এখনই উঠছে না লকডাউন। বাড়ছে বিধিনিষেধ। সিদ্ধান্ত আন্তঃমন্ত্রণালয়ের। শ্রীপুরে রাস্তা পার হতে গিয়ে কাভার্ড ভ্যান চাপায় স্বামী-স্ত্রী নিহত কঠোর লকডাউন কতোটা ফলপ্রসূ? সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ। করোনায় স্বাস্থ্যবিধি মানতে নড়াইলে মাশরাফির ব্যতিক্রমী পদক্ষেপ কি কি থাকছে সাত দিনের কঠোর লকডাউনে? লাগামহীন করোনার ভয়াবহতা! সোমবার থেকে কঠোর লকডাউন, মাঠে থাকবে সেনাবাহিনী। দেশের শীর্ষ পর্যটনকেন্দ্রের তালিকায় অপার সম্ভাবনার নাম সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলা নতুন সাতটি প্রতিষ্ঠানের সাথে চুক্তি স্বাক্ষর সম্পূর্ণ করলো শ্রেষ্ঠ ডট কম রাণীনগরে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে একই পরিবারের তিন জনকে অপহরণ নাটোক!




শিবগঞ্জে মেয়রের বিরুদ্ধে পাল্টা সংবাদ সম্মেলন

Reporter Name / ১৬১ Time View
Update : শনিবার, ৬ জুন, ২০২০




অবৈধভাবে পণ্যভর্তি গাড়ি থেকে টোল আদায়ের প্রতিবাদে গত ৪ জুন বৃহস্পতিবার চাঁপাইনবাবগঞ্জ মটর শ্রমিক ইউনিয়নের ব্যানারে চাঁপাই-সোনামসজিদ মহাসড়কের রসুলপুর মোড়ে মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয় শিবগঞ্জ পৌরসভা ও মেয়রের বিরুদ্ধে।

এর প্রতিবাদে ৫ জুন শুক্রবার দুপুরে শিবগঞ্জ পৌরসভা ও মেয়রের বিরুদ্ধে বিভিন্ন রকম বিভ্রান্তি-ষড়যন্ত্রমূলক, মানহানিকর অসত্য অপপ্রচারের প্রতিবাদে পৌরসভা চত্বরে সংবাদ সম্মেলন করেন পৌর মেয়র কারিবুল হক রাজিন।

এরই প্রেক্ষিতে ৬ জুন শনিবার সকাল ১০ টার দিকে পাল্টা সংবাদ সম্মেলন করেছে শিবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, কৃষকলীগ ও ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দরা। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য থেকে জানা যায়, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, শ্রমিক লীগ শিবগঞ্জ পৌর শাখার নেতৃবৃন্দ স্পষ্ট ভাবে বলেছে, শিবগঞ্জ পৌর মেয়র কারিবুল হক রাজিন একজন প্রতিষ্ঠিত চাঁদাবাজ, দূর্ণীতি পরায়ন, মাদকাসক্ত দুষ্কৃতি প্রকৃতির ব্যক্তি।

শিবগঞ্জ পৌরসভায় লোড আনলোডের অজুহাতে চলমান গাড়ি থামিয়ে টোল আদায় রীতিমত চাঁদাবাজি। শিবগঞ্জ পৌরসভায় পরিবহন সেক্টরের জন্য কোন বিধিবদ্ধ পার্কিং এরিয়া নেই। অথচ শিবগঞ্জ পৌর মেয়র তার পোষা মাদকাসক্ত সন্ত্রাসী বাহিনী চাঁদা তুলছে। এ ছাড়া চাঁদা না দেয়ায় ৩ জুন বুধবার ইসরাইল মোড়ে এক চালককে বেদম প্রহার করে এবং নির্যাতিত চালকের আত্মচিৎকারে স্থানীয় শ্রমিক সংগঠনের লোকজনসহ আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা জড়ো হলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়।

এরই ধারাবাহিকতায় ৪ জুন শ্রমিক নির্যাতনের প্রতিবাদে শ্রমিক সংগঠনের ব্যানারে রসুলপুর মোড়ে একটি প্রতিবাদ সভা ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ শিবগঞ্জ পৌর শাখা ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ একাত্বতা ও সংহতি জানিয়ে বক্তব্য দেন। কিন্তু বিষয়টিকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার জন্য মেয়র রাজিন সাংবাদিক সম্মেলনে আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দর উপর বিষোদগার করেন যা কোন ভাবেই কাম্য নয়। আজকের সাংবাদিক সম্মেলন থেকে এহেন ন্যাক্কারজনক কর্মকাণ্ড ও মিথ্যাচারের প্রতিবাদ জানানো হয়েছে।

লিখিত বক্তব্যে আরো বলা হয়, করোনা ভাইরাসের পরিস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখন দিনরাত পরিশ্রম করছেন তখন শিবগঞ্জ পৌর মেয়র ত্রাণ নিয়ে ঘৃণ্য রাজনীতিতে মেতে উঠেছেন। প্রধানমন্ত্রীর দেয়া ত্রাণ সামগ্রীকে নিজের নামে চালানোর চেষ্টা করছেন। প্রধানমন্ত্রীর দেয়া সরকারি ত্রাণ নিজের নামে দেয়া যেমন অপরাধ তেমন মিথ্যাচারও।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ত্রাণ বিতরণ তদারকির জন্য কমিটি গঠণের নির্দেশ দেন তখন বুঝে নিতে হবে রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গকে বাদ দিয়ে ত্রাণ কার্যক্রম যৌক্তিক হবে না। পৌর মেয়র নৌকা বিরোধী অবস্থান আরো জহির করার জন্য তিনি নিজে মুখে যেমন বলে বেড়াচ্ছেন আওয়ামী লীগের মনোনয়নের মেয়র নয়। অপরদিকে, আওয়ামী লীগের লোকজন বাদ দিয়ে একতরফা নিজস্ব লোকজনের মধ্যে ২৫০০ টাকা ঈদ প্রণোদনা প্যাকেজ বিতরণ করছেন।

এ বিষয়ে এরই মধ্যে লিখিত অভিযোগ এমপি, জেলা প্রশাসন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও পরিষদ চেয়ারম্যান কে দেয়া হয়েছে শিবগঞ্জ ওয়ার্ড আ.লীগ, যুবলীগ, ছাত্র লীগের পক্ষ থেকে। বারবার তাগাদা দেয়া সত্বেও ঈদ প্রণোদনা প্যাকেজ তালিকা প্রকাশ করছেন না।

লিখিত বক্তব্যে আরো বলা হয়, শিবগঞ্জ পৌর সভার একজন কৃতি সন্তান যিনি বিভিন্ন ভাবে শিবগঞ্জের মানুষকে সহযোগিতা করে আসছেন। তাকে আমরা শিবগঞ্জের মানুষ মানবতার ফেরিওয়ালা হিসেবে জানি।
তাঁর সুনাম নষ্ট হয় এমন অন্তঃসারশূণ্য বক্তব্য তিনি রেখেছেন। যা নিঃসন্দেহে নিন্দনীয় ও অকৃতজ্ঞতার বহিঃপ্রকাশ। আমরা জানি আপনি কারিবুল হক রাজিন নিজেই পা হারানোর পর সর্বপ্রথম উক্ত মহান ব্যক্তিটির কাছে দারস্থ হন এবং তিনি আপনার সমস্ত চিকিৎসার ব্যয়ভার বহন করেন।

তাছাড়া অনেকের কাছে পা লাগানোর কথা বলে অর্থ সংগ্রহ করেছেন অথচ রানা প্লাজায় ক্ষতিগ্রস্ত শ্রমিকদের জন্য বরাদ্দকৃত দাতা সংস্থার দেয়া একটি পা লাগিয়েছেন বিনা পয়সায়।

এ ছাড়া হাটঘাট ইজারা প্রদানে অনিয়ম, টেন্ডার না করেই উন্নয়ন কাজের ঠিকাদার নিয়োগ, নিয়োগ বাণিজ্য, ভুতুড়ে বিল ভাউচার করার অভিযোগও করা হয় লিখিত বক্তব্যে। এ ছাড়া নিয়োগ বাণিজ্যে ১৭ জনকে নিয়োগ দেন তিনি। পৌরসভার কর্মচারীদের ১২ মাসের বেতন দিতে পারছেন না। মাদকের পেছনে অর্থ যোগান ও শিবগঞ্জকে মাদকের অভয়ারণ্যে পরিনত করেছেন মেয়র রাজিন।

শিবগঞ্জ আওয়ামী লীগ, পৌর যুবলীগ, কৃষকলীগ, ছাত্রলীগের ব্যানারে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম কিবরিয়া, সাবেক উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মোঃ বেনজির আলী, পৌর যুবলীগের যুগ্ন আহ্বায়ক আসিফ আহমেদ সৌরভ, উপজেলা কৃষক লীগ সভাপতি শাখাওয়াত হোসেন তুসার ও সাধারণ সম্পাদক জিয়াউল হক, উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি রিজভী আলম রানা ও সাধারণ সম্পাদক আসিফ আহসান, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদি হাসান হিমেল ও সাধারণ সম্পাদক আলি রাজসহ অন্য নেতৃবৃন্দ।





আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category




side bottom