• বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:০৬ অপরাহ্ন
Headline
সমাজ উন্নয়নে অংশীদারীত্ব হয়ে কাজ করে যাচ্ছেন সাবেক ছাত্রনেতা ফয়সাল এখনই উঠছে না লকডাউন। বাড়ছে বিধিনিষেধ। সিদ্ধান্ত আন্তঃমন্ত্রণালয়ের। শ্রীপুরে রাস্তা পার হতে গিয়ে কাভার্ড ভ্যান চাপায় স্বামী-স্ত্রী নিহত কঠোর লকডাউন কতোটা ফলপ্রসূ? সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ। করোনায় স্বাস্থ্যবিধি মানতে নড়াইলে মাশরাফির ব্যতিক্রমী পদক্ষেপ কি কি থাকছে সাত দিনের কঠোর লকডাউনে? লাগামহীন করোনার ভয়াবহতা! সোমবার থেকে কঠোর লকডাউন, মাঠে থাকবে সেনাবাহিনী। দেশের শীর্ষ পর্যটনকেন্দ্রের তালিকায় অপার সম্ভাবনার নাম সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলা নতুন সাতটি প্রতিষ্ঠানের সাথে চুক্তি স্বাক্ষর সম্পূর্ণ করলো শ্রেষ্ঠ ডট কম রাণীনগরে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে একই পরিবারের তিন জনকে অপহরণ নাটোক!




২১শে ফেব্রুয়ারীতে কেবলমাত্র ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদনের মধ্যেই কি আমাদের দায়িত্ব সীমাবদ্ধ?

Reporter Name / ২৩১ Time View
Update : শুক্রবার, ২১ ফেব্রুয়ারী, ২০২০




বাপ্পী খান, ঢাকা: মহান ২১শে ফেব্রুয়ারী আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। এ দিবসের তাৎপর্য এতোটাই গুরুত্ব বহন করে যে, দিবসটি আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত আর সেটা আমরা সকলেই জানি।  কিন্তু ১৯৫২ সালের এই দিনে কেবল একটিমাত্র ভাষার দাবি আদায়ের জন্য জীবন যুদ্ধে অংশ নেয়া প্রতিটি বীর সৈনিকদের সেই মহান আত্মত্যাগের কতটুকু মূল্যায়ন করতে পেরেছি আমরা? কতটুকুই বা জানি সেই বীর ভাষা শহীদদের কাহিনী কিংবা তাদের পরিবারের অবস্থা?

মহান এ দিবসটি প্রতিবছরই যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করা হয় বাংলাদেশ সহ বিশ্বের আরো কয়েকটি দেশে। একুশের প্রথম প্রহরে প্রিয় সেই সব ভাষা শহীদদের প্রতি, মহামান্য রাষ্ট্রপতি এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানোর মধ্যে দিয়ে শুরু হয় ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন। এরপর একে একে সকলেই ফুল হাতে আসেন তাদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনর জন্য। কিন্তু প্রতিবছরই কেবলমাত্র এ ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদনর মধ্যেই কি আমাদের দায়িত্ব সীমাবদ্ধ?

মহান এ মানুষগুলো আমাদের মায়ের ভাষা ছিনিয়ে আনতে জীবন দিল রাজপথে আর তাদের প্রতি, তাদের পরিবারের প্রতি কতটা দায়িত্বশীল আমরা? এ প্রশ্ন কি কখনো জেগেছে আমাদের মনে? আর প্রশ্ন জাগলেও ঠিক কতোটা দায়িত্ব পালন করতে সক্ষম হয়েছি আমরা?

প্রতিবছর ২১শে ফেব্রুয়ারি মাতৃভাষা দিবসে রফিক, বরকত, সালাম জব্বারদের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য আমরা রাত ১২টার পর হতেই ফুল হাতে, খালি পায়ে লাইন ধরি শহীদ মিনারের উদ্দেশে। আর বছরের বাকি ৩৬৪ দিন কি আমরা একটিবারের জন্যও স্বরণ করি তাদের? যাদের জন্য আজ আমরা জাতি হিসেবে বাঙালী, যাদের এ মহান আত্মত্যাগের জন্য আজ আমরা লিখতে,পড়তে ও মনের ভাব প্রকাশ করতে পারি বাংলা ভাষায় সেই মহান ভাষা সৈনিকদের পরিবারের মানুষগুলোর খোঁজ নিতে, তাদের পাশে দাড়াতে একটিবার ও কি লাইন ধরি আমরা? নাকি একটিবারও আজকের এ দিনটির মত পবিত্র শহীদ মিনারে জুতা হাতে নিয়ে খালি পায়ে প্রবেশ করি?

আমরা প্রায় ১৭ কোটি বাঙালি। এদের মধ্যে সিংহভাগ মানুষই প্রতিবছর মাতৃভাষা দিবসের এই দিনটিতে কোটি কোটি টাকা ব্যয় করি কেবলমাত্র ফুল কেনার জন্য। আমরা পাশে দাঁড়ায় আর সহযোগিতা করি ফুল ব্যবসায়ীদের। আবার এ সকল দিবস এলেই যেন ফুল ব্যবসায়ীরা ও দেশের কথা ভুলে, প্রিয় মাতৃভাষার কথা ভুলে হয়ে উঠেন কেবলই সুযোগ সন্ধানী।

কিন্তু দুঃখের বিষয় হলো আমরা কি কখনো একটিবারের জন্যও ভেবে দেখেছি, মাত্র একটি দিনের জন্য খালি পায়ে, লাইন ধরে, শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য কেনা কোটি কোটি টাকার এসব ফুলের অবস্থান একটিদিন বাদেই হয়ে যায় ডাস্টবিনে আর একইসাথে শেষ হয়ে যাবে বছরের এ একটি দিনের জন্য আমাদের শ্রদ্ধা নিবেদনের আর দায়িত্বের।

এটাই কি হওয়ার ছিল? রফিক, বরকত, সালাম, জব্বারদের মত বীর সেনারা কি সেদিন কেবল এরই জন্য জীবন উৎসর্গ করেছিল? একটিবার কি আমরা পারিনা বছরের এ মহান দিবসটিকে কেন্দ্র করে তাদের পরিবারের পাশে গিয়ে দাড়াতে? আমরা কি পারিনা কোটি কোটি টাকা শুধুমাত্র ডাস্টবিনে না ফেলে তাদের পরিবারকে সাথে নিয়ে দেশের জন্য একটা ভাল উদ্দ্যোগ নিতে? বেকার, অস্বচ্ছল, অসহায় কিংবা ভিটেমাটিহীন মানুষদের জন্য কিছু করতে? যারা জীবনের বিনিময়ে আমাদেরকে দিয়ে গেল প্রিয় এ মাতৃভাষা তাদের জন্য কি শুধু এ ফুলের মধ্যে দিয়েই আমাদের দায়িত্ব পালন শেষ?

কখনোই না, আমরা বাঙালী, আমরা জাতীগতভাবে কতটা দেশপ্রেমিক, কতটা একতাবদ্ধ তার সবথেকে বড় প্রমাণ হলো এই ৫২ আর ৭১। তাই মহান এ মাতৃভাষা দিবসে প্রিয় ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা রেখেই বলতে চাই আসুন আমরা আমাদের সঠিক দায়িত্ব পালনে সক্রিয় হই, জাগ্রত করি আমাদের সঠিক চেতনাবোধ।

সেইসাথে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলতে চাই, দয়া করে মহান ঐ সকল মানুষগুলোর বাংলা ভাষার জন্য আত্মত্যাগের মূল্যায়ন যেন কেবলমাত্র একটি দিনের জন্যই আর শুধু ফুল কেনার মধ্যে সীমাবদ্ধ না থাকে সে ব্যাপারে আপনার সঠিক এবং প্রয়োজনীয় হস্তক্ষেপ কামনা করছি।





আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category




side bottom